বিশ্ববিদ্যালয়ের দরখাস্ত লেখার নিয়ম -প্রশংসা পত্র লেখার নিয়ম -মার্কসিটের জন্য আবেদন

বিশ্ববিদ্যালয়ের দরখাস্ত লেখার নিয়ম জানার জন্য আপনার এই অয়েব সাইটে প্রবেশ করুন। এবং যে কোনে প্রতিষ্ঠানে প্রশংসা বা মার্কশিটি তোলার জন্য এই নিয়ম দেখুন।

    আসসালামু আলাইকুম আশা করি আপনারা সকলেই ভাল আছেন আজকে আপনাদেরকে জানাব কিভাবে  যে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের দরখাস্ত    লিখতে হয় এবং আপনার     বিশ্ববিদ্যালয়ের দরখাস্ত   লিখতে পারেন।দরখাস্ত  সম্পর্কে   বিস্তারিত আলোচনা  করব এই পোষ্টে ।

    prosongsa potro bangla

    নিচের দিকে একটি সম্পূর্ণ দরখাস্ত  লেখা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের দরখাস্ত জন্য  আপনার  সেই দরখাস্তটি শুধু দেখতে পারেন বিস্তারিত না জানতে চাইলে । বিশ্ববিদ্যালয়ের দরখাস্ত লেখার নিয়ম এখান থেকে শুরু করুন।


    আমি অবশ্য দুইয়ের অধিক  দরখাস্ত   এর নিয়ম দিব। যেট ভালো লাগে সেটা দেখে দেখুন এবং  লিখুন।

    অন্য বিষয় 

    অগ্রিম ছুটির জন্য আবেদ, অগ্রিম ছুটির জন্য দরখাস্ত করতে ক্লিক করুন 

    পরীক্ষার জন্য অফিসে ছুটির আবেদন,ছুটির জন্য আবেদন,অগ্রিম ছুটর আবেদন যেকোনো অফিসের ছুটির আবেদন লিখতে ক্লিক করুন 

    অনুপস্থিতির জন্য ছুটির আবেদন,ছুটির জন্য আবেদন নিয়ম জানতে ক্লিক করুন

    অফিসে ছুটির দরখাস্ত লেখার নিয়ম, ছুটির জন্য আবেদন,চিকিৎসা জনিত ছুটির জন্য আবেদন করার জন্য ক্লিক করুন

    অসুস্থতার জন্য অফিসে ছুটির আবেদন পত্র  ,অনুপস্থিতির জন্য ছুটির আবেদন জানতে ক্লিক করুন

    অসুস্থতার জন্য অফিসে ছুটির আবেদন পত্র english,অফিসে ছুটির আবেদন পত্র english

     অগ্রিম ছুটির জন্য আবেদন English,অফিস থেকে অগ্রিম ছুটির আবেদন english, হেডমাস্টার  অগ্রিম ছুটির জন্য আবেদন English জানতে ক্লিক করুন

    ইংরেজিতে দরখাস্ত লেখার নিয়ম,মেয়রের ,এস পি, ডিস , চেয়্যারমন কাছে , বাংলায় দরখাস্থ লেখার নিয়ম জানতে ক্লিক করুন

    ইংরেজিতে দরখাস্ত লেখার নিয়ম,মেয়রের ,এস পি, ডিস , চেয়্যারমন কাছে , বাংলায় দরখাস্থ লেখার নিয়ম জানতে ক্লিক করুন

    চেয়ারম্যান বরাবর দরখাস্ত লেখার নিয়ম,আর্সেনিক মুক্ত পানি সরবাহরে জন্য চেয়ারম্যানের কাছে আবেনদ পত্র  নিয়ম জানতে ক্লিক করুন

    কাউন্সিলর বরাবর দরখাস্ত লেখার নিয়ম জানতে ক্লিক করুন

    অনলাইনের জন্ম নিবন্ধন নাম্বার ও জন্ম তারিখ(yyy mm dd) দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই এবং জন্ম নিবন্ধন অনলাইনের কপি ডাউনলোড জানতে ক্লিক করুন

    কলেজের উপবৃত্তির টাকা দেখার নিয়ম জানতে ক্লিক করুন

    বিশ্ববিদ্যালয়ের দরখাস্ত লেখার নিয়ম -প্রশংসা পত্র লেখার নিয়ম



    বিশ্ববিদ্যালয়ের দরখাস্ত লেখার নিয়ম -প্রশংসা পত্র লেখার নিয়ম 

    যে কোন সমস্যার  জন্য  কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করতে হলে বিশেষ করে উপাচার্য,  হেডমাস্ট, প্রিন্সিপাল, মহাশয়  ইত্যাদি  নিকট আবেদন করতে হলে নিমোক্ত আবেদন নিয়ম অনুসারে আবেদন/দরখাস্থ  লিখতে হবে।  


    বিভিন্ন  কারনে আবেদন  করতে হয় । উদাহারন হিসাবে যেমন আপনার , পারিবাবিক সমস্যা, আপনার ভাই বোনের বিয়ে বা অসুস্থ্য বা  অন্য কোনো গুরুপত্ব কাজের জন্য সধারনত ছুটি নেওয়ার প্রয়োজন দেখা দেয়। তো এর কারনে  বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নিকট এটি দখাস্ত করতে হয় যার ফলে ছুটি মুঞ্জর হয়।


    আপনাদের যদি বিস্তারিত না জানতে হয় তাহলে আপনারা নিম্নে থেকে    দরখাস্ত লেখার নিয়ম রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় বরাবর সেখান থেকে আপনারা দেখতে পারেন। ব্যক্তিগত বা কোনো টিমের  জন্য ।বিশ্ববিদ্যালয় বরাবর দরখাস্ত লিখতে হয় বিভিন্ন কারণে। 


    দরখাস্ত লিখতে চান অনেকেই কিন্তু  লেখার নিয়ম হয়তবা জানা থাকে না  কিভাবে  বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের     বরাবর লিখতে হয় ।অথবা জানলেও  মনের ভেতর দ্বিধাদ্বন্দ্ব থাকে কিভাবে  সুন্দর করে  একটি দরখাস্ত   লিখতে হয় ।

     

    একটি দরখাস্ত করার জন্য সবচেয়ে মূল উপাদান হলো দরখাস্তের মধ্যে থাকা ভাষাগুলো । দরখাস্ত ভাষাগুলো গুরুত্বপূর্ণ দিক রয়েছে অনেক। দখাস্ত লেখার  গুরুত্বের দিক দিয়ে ভাষার গুরুত্ব অনেক ।  বিনীত ভাষা একটি দরখাস্ত লিখা বাঞ্ছনীয় ।


    যেহেতু দরখাস্ত মধ্যে আপনার বিভিন্ন সমস্যা  বিষয় এবং উক্ত  সম্পর্কে বা  সম্বন্ধের ব্যাপারে লিখতে হবে। যথাযথভাবে দরখাস্ত লিখে এবং বিষয়গুলো উল্লেখ করেন   কর্তৃপক্ষ  বরাবর  দরখাস্ত করতে পারলে মঞ্জুর  হওয়ার সম্ভনা বেশি থাকে । 


     একটি  দরখাস্ত  এর মাধ্যমে আপনার  যে সমস্যা সেই সমস্যার টি উল্লেখ করে ফুটিয়ে তুলে কর্তৃপক্ষ    বরাবর আবেদন করতে হবে। আপনার বিশ্ববিদ্যালয়  দায়িত্বরত  বরাবর কার নিকট  লিখবেন তখন সেটি উল্লেখ করে দিবেন।


     মূলত যে বিষয়ক নিয়ে দরখাস্ত দাখিল করতে চান সেই বিষয়টি  দরখাস্ত  তার মধ্যে  উল্লেখ করে দিতে হবে এবং যার কাছে দরখাস্ত দেবেন  তা স্পষ্ট করতে হবে। আপনার সমস্যাগুলোর  বিনীত ভাষায় উল্লেখ করে দিতে হবে যাতে পাঠক পড়ে বুঝতে পারে আপনার বিষয়গুলো।


    বিশ্ববিদ্যালয়ের দরখাস্ত লেখার নিয়ম


    দরখাস্ত  শুরু করতে হয়  এবং কোথায় থেকে শুরু করতে  শেষ করতে হয় কিভাবে ইত্যাদি নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করর   সংক্ষিপ্ত আকারে আপনার যদি না জানা প্রয়োজন না হয় তাহলে নিচে গিয়ে আপনি দরখাস্ত টি দেখুন।


    প্রথমত তারিখ দিয়ে শুরু কতে হবে যে দিন লিখবেন সেইদিনের তারিখ এরপর বরাবর  তারপর যার কাছে দরখাস্ত করতে চান সেই  নাম ,আপনার  বিশ্ববিদ্যালয় স্থান এর নাম,  বিষয় দিয়ে  তার নিচে জনাব লিখে মাঝে  আপনার সমস্যা বা বিষয় বনর্না করতে হবে।


     

     আপনাকে  বিস্তারিত  আলোচনা করতে হবে যে বিষয়ে আপনার সমস্যা সে বিষয় নিয়ে  বিস্তারিত লিখিতে হবে । মোটকথা আপনার যে সমস্যাগুলো সে সমস্যাগুলো সুন্দর করে লিখে দেবেন মাঝ বরাবর।  অবশ্য  এই পোষ্টের নিচে নীতি-নিয়ম থাকবে দরখাস্ত লেখার দেখবেন।  


     

    দরখাস্ত লেখার পূর্বে গুরুত্বপূর্ণ কিছু নিয়ম দেখে নিন আগে। দরখাস্ত লেখার জন্য সর্বপ্রথম প্রয়োজন একটি সাদা খাতা। যার মধ্যে কোন মার্জিন বা রোলার দোয়াত কালি দ্বারা আটকানো থাকবে না। কেননা  দরখাস্ত মধ্য মার্জিন দেওয়া থাকে তাহলে সেই দরখাস্ত গ্রহণযোগ্যতা পায় না।


    এর জন্য সর্বপ্রথম প্রয়োজন একটি সাদা  খাতা।লাইন সোজা  রাখার জন্য আপনারা বাম পাসে ভাজ করে নিতে পারেন হাফ ইঞ্চি বা এক ইঞ্চি পরিমাণ। উপর থেকে নিচ পর্যন্ত লাইন সমান থাকা বাঞ্ছনীয় এবং বাম পাশে সমানভাবে থাকবে।


    দরখাস্ত  লাইন যেন বাঁকা না হয় সেদিকে আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে  এর জন্য আপনি বামপাশে সমানভাবে রোলার করার মত শুধু দাগ থাকবে না । প্রয়োজন বেদ আপনারা ডানপাশে ভাগ করে নিতে পারেন তবে সামান্য এক ইঞ্চি নিচে্।আধা ইঞ্চি সবচেয়ে ভালো


    এমনভাবে  দরখাস্ত লিখতে হবে  দরখাস্ত  ভিতরের ভাষা গুলো স্পষ্ট বোঝা যায়  ।দরখাস্ত  এর ভেতর এমন বর্ণনা  যাতে আপনি  যে বিষয়গুলো  নিয়ে  আবেদন করতে চান  সে বিষয়   উক্তপাঠক   যেন বুঝতে ভালো ভাবে বুঝতে পারে তা খেয়াল রাখা বাঞ্চনীয়।


    এমন ভাবে আপনার দরখাস্ত লিখতে হবে  যাতে দরখাস্ত দেখে  পাঠক মনে করে যে আপনার দরখাস্ত  মঞ্জুর করা  বাঞ্ছনীয় । একটি দরখাস্ত উপর নির্ভর করে  সেটি কি মঞ্জুর হবে  কি হবে। এজন্য সুন্দর  দরখাস্তের ভাষাগুলো  বুঝতে অসুবিধা না হয় সেদিকে খেয়াল রাখবেন। 


    বিশ্ববিদ্যালয়ের দরখাস্ত লেখার নিয়ম-দরখাস্ত লেখার নিয়ম

    আমি অবশ্য দুইয়ের অধিক  বিশ্ব বিদ্যালয়ের নিরকট দখাস্থ  এর নিয়ম দিব। যেট ভালো লাগে সেটা দেখে লিখুন। আপনি যে কয়দিনের ছুটি কাটাতে চান তা কিন্তু সহজ ভাষায় উল্লেখ করে দিতে হবে বা কোনো কিছু চাইতে হলেও তা উল্লেখ করতে হবে ।তাহলে বিষয়টি মঞ্জর হবে।

     দরখাস্থ/আবেদন

    বিশ্ববিদ্যালয়ের দরখাস্ত লেখার নিয়ম

    তারিখ:২২/০৭/২০২২

    বারবর

    উপাচার্য

    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

    ঢাকা,বাংলাদেশ


    বিষয়:মার্কশিট তোলার জন্য আবেদন পত্র।


    জনাব,

    বিনীত নিবেদন এই যে, আমি আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিঙ্গান বিভাগের একজন শিক্ষার্থী।আমার ব্যক্তিগত কারণে এইচ এসসি পরীক্ষার মার্কশিট অনেক বেশি প্রয়োজন । বর্তমানে আমার এইচএসসি পরীক্ষার মূল মার্কশিট আপনাদের কাছে জমা রয়েছে।


    অতিএব, আপনার নিকট আকুল আবেদন এই যে আমাকে এইচএসসি পরীক্ষার মূল সার্টিফিকেট প্রদান করিলে , আমি কৃতঙ্গ থাকিবো। 


    নিবেদক

    মো:নাজমুল হোসেন

    রাষ্ট্রবিঙ্গান বিভাগ

    রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালায়

    রোল:

    (আপনাকে চিনতে পারে এখানে সে বিষয় উল্লেখ করবেন)

     

    মার্কসিট তুলার জন্য কলেজ,বিশ্ববিদ্যাল,স্কল নিকট আবেদন।

    তারিখ:

    বরাবর

    অধ্যক্ষ

    [কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়,স্কুল এর নাম]


    বিষয় : প্রশংসাপত্রের জন্যে আবেদন।


    জনাব,

    সবিনয় নিবেদন এই যে , আমি  আপনার কলেজ/বিশ্ববিদ্যালয়ের গত দুই বছর সুনাম ও কৃতিত্বের সাতে অনুগত ছাত্র / ছাত্রী হিসাবে অধায়ন করেছি  আপনার কলেজ হতে .. সালে কুমিল্লা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত এইস এসসি পরীক্ষায় জিপিএ 4.5 পেয়ে উত্তীন হয়েছি । কলেজে অধ্যয়ন কালে আমি কলেজের ক্রীড়া ওসাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সাঙ্গে ও সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলাম এবং কোনো রকম আইনশৃঙ্খলা বিরোধী কাজে অংশগ্রহন করিনি। বর্তমানে আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে ইচ্ছক। তাই আমার একটি প্রশংসাপত্র পযোজন।


    অতএব অনুগ্রহপূর্বক আমাকে আমার চারিত্রিক ও শিক্ষা বিষয়ক প্রশংসাপত্র প্রদান করে বাধিত করবেন।

    বিনীত নিবেদক

    আপনার একান্ত অনুগত ছাত্র/ছাত্রী।

    নাম:

    রোলঃ…

    নিবন্ধন:....

    শিক্ষাবষয়:...


    ছাড়ত্র পাওয়ার আবেদন / দখাস্ত পত্র লেখার নিয়ম

    তালিখ:..

    অধ্যক্ষ

    কারমাইকেল বিশ্ববিদ্যালয় কজে,

    ঢাকা।


    বিষয়: কলেজ পরিত্যাগের ছাড়পত্রের জন্য আবেদন।


    জনাব,

    সবিনয় নিবেদন এই যে , আমি আপনার কলেজের একাদশ শ্রেনির প্রথম বর্য়ের একজন ছাত্র । আমার বাবা একজন সরাকারি চাকরিজীবী । বদলিজতিন কারনে তার কর্মস্থ পরিবতৃন হওয়ার আমাকে ও কলেজ পরিত্যাগ করে বাবার নতুল কর্মস্থল বগুড়ায় চলে যেতে হচ্ছে। এ অবস্থঅয় কলেজ থেকে আমার ছার পত্র গ্রহন প্রয়োজনীয় হয়ে পড়েছে।


    এ পরিপ্রেক্ষিতে , আমাকে কলেজ পরিত্যাাগের ছাপত্র প্রদান করার জন্যে সবিনয় আদেন জানাচ্ছি।


    বিনীত নিবেদক

    আপনার একান্ত অনুগত ছাত্র

    নাজমুল হোসেন।

    একাধশ শ্রেনি , প্রথম বর্ষ

    রোল নাম্বর:..

      

    আশা করি আপনারা    বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে সুন্দর একটি দরখাস্ত লিখতে পারবেন আশা করি  এই নিয়মের মাধ্যমে খুব সহজে আপনারা আপনাদের জন্য একটি দরখাস্ত তৈরি করে নিতে পারবেন খুব সহজে। এখানে সহজ ভাষায় বর্ণনা করা হয়েছে। দরখাস্তের নিয়ম গুলো রয়েছে এই নিয়মগুলো অনুসারে দরখাস্ত করুন।


    এখানে আমি বিষয়ে লিখেছি   অনপস্থির , পারবারি এবং সকল বিষয়ের   জন্য  আবেদন । আমি লিখেছি আমার সমস্যা   নিয়ে। এখন আপনাদের সমস্যা এখানে আপনি সেই   সমস্যাটি উল্লেখ করে অফিস কর্তৃপক্ষের বরাবর দরখাস্ত লিখবেন।  যে ভাবে লিখা হয়েছে  ঠিক একইভাবে আমার সমস্যার জায়গায় আপনার সমস্যা দিয়ে দিবেন্।


     তাহলে হয়েই গেল না আপনার দরখাস্ত লেখা খুব সহজে শুধু কিছুটা পরিবর্তন করলেই হবে আশা করি আপনারা এতক্ষণ একটি দরখাস্ত তৈরি করে ফেলেছেন।


    আপনারা কোন কম্পিউটারে টাইপিং করে জমা দিতে পারেন  বর্তমানে  হাতের লেখা দরখাস্ত এর চাইতে কম্পিটারে লিখিত দরখাস্ত জন্য সবচাইতে ভালো  এক্ষেত্রে আপনার  কম্পিউটার টাইপিং এর মাধ্যমে লিখিত দরখাস্ত টি প্রিন্টারে প্রিন্ট করে নেবেন।


     আর যদি মনে হয় যে আপনার   পিন্ট করাটা একটু সমস্যা তাহলে যার হাতের লেখা সুন্দর তাকে দিয়ে আপনি লিখে নেবে যদি আপনার লেখা বুঝা যায় তাহলে আপনি লিখে দিবেন তবে কম্পিউটার টাইপিং করে নিলে সুন্দর হয়।


     যদি আপনি   কম্পিউটার টাইপিক  কারাম মাধ্যমে লিখে নেন তাহলে অল্প কিছু র্চাজের মাধ্যমে তারা লিখে দিবে আপনাকে।  আশা করি বিষয়গুলো আপনারা বুঝতে পেরেছেন।


     প্রতিনিয়ত এই ওয়েবসাইটে তথ্যমূলক পোস্ট করা হয় এ ধরনের তথ্যমূলক পোস্ট পাওয়ার জন্য এই ওয়েবসাইটের সঙ্গে থাকুন এই ওয়েবসাইটের  পূর্বে   আরো তথ্য মূলক   পোস্ট করা হয়েছে সেগুলো দেখতে পারেন যার মাধ্যমে আপনারা উপকৃত হবেন।  

    LikeYourComment